বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০২:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ইস্যুতে মামলা: আন্তর্জাতিক আদালতে লড়বেন সু চি জন্মদিনে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন সাংবাদিক দীপক শর্মা দীপু এতিমখানার নিবন্ধন বহাল,টাকা আত্মসাত, মানবন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল প্রেসক্লাবের সকল অনুষ্ঠানমালা বর্জনের ঘোষনা বান্দরবানে কর্মরত সাংবাদিকদের জাহাজ প্রস্তুত রোহিঙ্গারা যাবে ভাসানচরে লবণ গুজব’ ঠেকাতে মাঠে প্রশাসন, আটক শতাধিক পালংখালীতে ‘ইউএনও কলেজ’এর জন্য এনজিও গুলোর সহায়তা চাইলেন উখিয়ার ইউএনও স্থানীয়দের নগদ অর্থ নয়, গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করুন : ইউএনও নিকারুজ্জামান চাহিদার চেয়ে দেশে ২ লাখ ২৪ হাজার টন লবণ বেশি ট্রাভেল টিউবার এক দম্পতির ভ্রমণনেশা

উখিয়ার শামীমের বিরুদ্ধে জঙ্গী তৎপরতার অভিযোগ

  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৯
  • ১০৬ জন দেখেছে

উখিয়া নুর হোটেলর স্বতাধিকারী শামসুদ্দিন শামীমের বিরুদ্ধে হোটেল ব্যবসার আড়ালে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক জঙ্গী,নারী-পাচার,ইয়াবা ও অস্ত্র ব্যবসায়ের অভিযোগ উঠেছে। দীর্ঘদিন ধরে লোকচক্কুর অন্তরালে তিনি রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিক্তিক জঙ্গী সংগঠনগুলো ও বিভিন্ন অবৈধ অপকর্মের কার্যত্রুম চালিয়ে আসছে বলে জানা গেছে। তার বিরুদ্ধে সম্প্রতি ইয়েমেন ও পাকিস্তানসহ একাধিক দেশ সফরের তথ্য মিলেছে।

জানা যায়, রোহিঙ্গা আসার শুরুর দিকে শামীম তবলীগের আড়ালে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিভিন্ন কার্যত্রুম পরিচালনা করে আসছে। সেই থেকে শুরু। একের পর এক রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বিভিন্ন সহযোগিতামুলক কর্মকান্ড বাড়িয়ে দেন তিনি। সবকিছু তদারকির জন্য উখিয়া নুর হোটেলের পাশে^ একটি অফিস নেওয়া হয়। তার অফিস ও বাড়ীতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে লোকজনের আনাগুনা বেড়ে যায়। রোহিঙ্গা আসার পর সে খুব একটা নুর হোটেলে বসেনি। রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক কার্যত্রুমের সুবিধার্থে স্ত্রী থাকার পরও সে এক রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করে।
এ বিষয়ে শামীমের বড়ভাই জসিম উদ্দিন বলেন,তার সাথে বেশ কিছুদিন ধরে পরিবারের খুব একটা যোগাযোগ নেই। রোহিঙ্গা আসার পর থেকে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রাপ্ত থেকে মৌলভী টাইপের লোকজন তার সাথে দেখা যায়। তাদের নিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তার অবস্থান। দোকান বা বাড়ীতে খুব একটা থাকেনা সে। শুনেছি তাদের সাথে ইয়েমেন,সেীদি আবরসহ বিভিন্ন দেশ সফর করেছে শামীম।

রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক কার্যত্রুমের সুবিধার্থে সে ক্যাম্প থেকে বিয়ে করেছে। কুতুপালং লম্বাশিয়ার অদুরে জরাইতলী নামক স্থানে ৯০ কানি জায়গা ত্রুয় করে তাতে ছোট ছোট স্থাপনা তৈরী করা হয়েছে। সবকিছু তদারকির জন্য নির্মান করা হয়েছে কয়েকটি টাওয়ার। যা সন্দেহজনক। সেখানে বিরাট এলাকাজুড়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিত্তিক বিভিন্ন জঙ্গী সংগঠনের বৈঠক হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
(গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত) © All rights reserved © 2019 DailyCoxnews
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com