পর্যটনকেন্দ্র চালু, ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় সংশ্লিষ্টরা | Daily Cox News
  • বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পর্যটনকেন্দ্র চালু, ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় সংশ্লিষ্টরা

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০
Screenshot 20200818 090436

করোনাভাইরাসের কারণে পাঁচ মাস বন্ধ থাকার পর খুলে দেওয়া হয়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত। এছাড়া বান্দরবান, রাঙ্গামাটিসহ দেশের আরও কিছু পর্যটনকেন্দ্র উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা বলছেন, দীর্ঘদিন পর দেশের পর্যটন স্থানগুলো খুলে দেওয়ায় পরিবহন সেক্টর আবারো চাঙা হবে।

সোমবার (১৭ আগস্ট) রাজধানীর কলাবাগান বাস স্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, সেন্টমার্টিন পরিবহনের কাউন্টারে কক্সবাজারের টিকিট কিনতে এসেছেন এস এম ইমরান হোসেন। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, অনেকদিন পর কোথাও যাচ্ছি। বন্ধুরা মিলে ঘুরতে যাচ্ছি কক্সবাজার।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের প্রভাব এখন কিছুটা কম মনে হচ্ছে। তবে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। ঘুরতে গেলেও আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলব। আশা করি, পরিবহনগুলোও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করবে।

সেন্টমার্টিন পরিবহনের মালিক ও কুমিল্লা বাস মালিক সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির রাইজিংবিডিকে বলেন, করোনার কারণে পরিবহন বন্ধ ছিল। শ্রমিকদের ঠিকভাবে বেতনও দিতে পারিনি। পরে অর্ধেক যাত্রী ও ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে গাড়ি চলাচল করে। কিন্তু আমরা যাত্রী পাইনি, কারণ আমাদের বাস চলাচল করে পর্যটন এরিয়ায়।

তিনি বলেন, বিভিন্ন স্থানে পর্যটন স্থান খুলে দেওয়া হয়েছে। এখন ভ্রমণপিপাসুরা ঘুরতে যাবে। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত খুলে দেওয়ার পর টিকিট ভালো বিক্রি হচ্ছে। আশা করি আমাদের সব কষ্ট দূর হয়ে যাবে।

ডলফিন পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার মোহাম্মদ মাসুম বিল্লা রাইজিংবিডিকে বলেন, বান্দরবান, রাঙ্গামাটির বিভিন্ন পর্যটন স্থান খুলে দেওয়া হয়েছে। এই খবর পেয়ে পর্যটকরা গতকাল রাতেই অনেকে টিকিট বুকিং দিয়েছেন। যাত্রীদের সাড়া ভালোই পাওয়া যাচ্ছে।

হানিফ পরিবহনের কাউন্টার ম্যানেজার একরামুল হক বলেন, করোনার প্রভাবে পর্যটন জেলাগুলোতে যাত্রী ছিল না। তবে যেহেতু পর্যটন স্পটগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে, যাত্রীর সংখ্যা দিনদিন বাড়বে

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা