ওসি প্রদীপসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতে এজাহার | Daily Cox News
  • শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:১৬ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ওসি প্রদীপসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতে এজাহার

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেট : বুধবার, ২৬ আগস্ট, ২০২০
প্রদীপ কুমার দাশ

টেকনাফে কথিত বন্দুকযুদ্ধের নামে হত্যা এবং নির্যাতনের অভিযোগে সাবেক ওসি প্রদীপ, ইন্সপেক্টর লিয়াকতসহ পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে।

কক্সবাজারে মাহামুদুল হক নামে এক প্রবাসীকে হত্যার অভিযোগে এজাহারটি করেন তার ভাই। আসামী টেকনাফের সাবেক ওসি প্রদীপসহ ২৩ জন। আদালত এজাহারটি পর্যালোচনা করে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাহামুদুল হক নিহতের ঘটনায় টেকনাফ থানায় করা মামলার বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছেন।

বুধবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে জৈষ্ঠ বিচারিক হাকিম (টেকনাফ-৩) মো. হেলাল উদ্দিনের আদালত এ আদেশ দেন।

অভিযুক্তদের মধ্যে ওসি প্রদীপসহ ১৬ জন পুলিশের সদস্য।

অভিযুক্তরা হলেন- টেকনাফ থানার এসআই দীপক বিশ্বাস, ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, এসআই জামসেদ আহমদ, ওসি (তদন্ত) এবিএমএস দোহা, এসআই দীপংকর কর্মকার, এএসআই হিল্লোল বড়ুয়া, এএসআই ফরহাদ হোসেন, এএসআই আমির হোসেন, এএসআই সনজিৎ দত্ত, কনস্টেবল রুবেল শর্মা, কনস্টেবল সাগর দেব, ড্রাইভার জহির, কনস্টেবল হৃদয়, ব্যাটালিয়ন কনস্টেবল সৈকত, ব্যাটালিয়ন কনস্টেবল প্রসেনজিৎ, ব্যাটালিয়ন কনস্টেবল উদয়, হ্নীলার সিকদারপাড়ার মৃত মোস্তফা কামালের ছেলে নুরুল আমিন ওরফে নুরুল্লাহ দফাদার, একই এলাকার মৃত আবু শামার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম, নাটমুরাপাড়ার নজির আহমদের ছেলে নুরুল হোছাইন, সিকদারপাড়ার আলোর ছেলে ভুট্টো, মৃত তোফায়েল আহমদের ছেলে আনোয়ারুল ইসলাম ননাইয়া, পূর্ব পানখালীর আবুল হাশেমের ছেলে নুরুল আলম ও মৃত নবী হোসেনের ছেলে নুরুল আমিন।

এদিকে চট্টগ্রামের মামলাটি দায়ের করেন ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন। এই মামলায় মেজর (অব.) সিনহা রাশেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামী লিয়াকতসহ ৭ জন।

জসিমের অভিযোগ, লিয়াকত তাকে বন্দুকযুদ্ধে হত্যার চেষ্টা চালিয়ৈছেন। মামলাটি তদন্তের জন্য গোয়েন্দা পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা