স্বামীকে সিএনজিতে আটকে রেখে নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক চার | Daily Cox News
  • শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৪:১৮ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

স্বামীকে সিএনজিতে আটকে রেখে নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক চার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
আপডেট : রবিবার, ৩০ আগস্ট, ২০২০
স্বামীকে সিএনজিতে আটকে রেখে নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, আটক চার

রাতে বাসায় ফেরার পথে এক নারীকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পরপরই (২৯ আগস্ট) গত রাতেই অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (উত্তর জোন) আশিকুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আটক চারজনের বিরুদ্ধে বায়েজিদ বোস্তামি থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

আটক চারজন হলেন বাদশা মিয়া (৩৬), মো. জাবেদ (২৮), মো. রবিন (১৯) ও মো. ইব্রাহিম (৩০)। এ ঘটনার মূল হোতা মো. শফি পলাতক রয়েছেন।

আশিকুর রহমান তিবি বলেন, ভিকটিম ওই নারী শনিবার সন্ধ্যায় তার স্বামীসহ রৌফাবাদ থেকে ওয়াপদা গেটে যান। রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই এলাকা থেকে আসার পথে অক্সিজেন মোড় আলপনা ক্লাবের সামনে পৌঁছলে জনৈক শফি তাদেরকে আটক করে নাম ঠিকানা জিজ্ঞাসা করে। এসময় তারা স্বামী-স্ত্রী নয় বলে সন্দেহমূলক কথাবার্তা বলে। একপর্যায়ে শফি তার বন্ধু বাদশা, ইব্রাহিম, মো. জাবেদ ও রবিন’দের সংবাদ দিয়ে জড়ো করে। এরপর ভিকটিম ও তার স্বামীকে রাত সাড়ে ১১টার দিকে হুজুরের বাড়িতে নেবে বলে জোর করে একটি সিএনজিতে তুলে শহীদ নগর এলাকায় নিয়ে যায়। রাত দেড়টা পর্যন্ত ওই এলাকায় তাদের সিএনজিতে তুলে এটা সেটা বলে এদিক-ওদিক ঘোরাতে থাকে। এরপর রাত দেড়টার দিকে ওই নারীর স্বামীকে সিএনজিতে আটকে রেখে তাকে মধ্যম শহীদ নগর সালমা কলোনির ৫ম রুমে নিয়ে যায়। পরে সেখানে ৫জন ওই নারীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় রাত আড়াইটার দিকে ৯৯৯ এ অভিযোগ পেয়ে বায়েজিদ থানা পুলিশের একটি টিম অভিযান শুরু করে। রাতভর অভিযান চালিয়ে প্রথমে ভিকটিমসহ তার স্বামীকে উদ্ধার করে। পরে তাদের শনাক্ত মতে ৪ জনকে আটক করা হয়। আটক চারজন সংঘবদ্ধ ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। ঘটনার মূল হোতা শফি এখনও পলাতক

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা