গৃহবধূকে চার টুকরো করে হত্যার ঘটনায় ছেলে আটক | Daily Cox News
  • রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১১:২৩ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম :
একাকিত্বকে টার্গেট করে কলেজ শিক্ষিকাকে একের পর এক ধর্ষণ ৪৫ লাখ টাকা ছিনতাই করে কক্সবাজার ভ্রমণ, পুলিশ ধরল যেভাবে মহানবী (স.) কে কটূক্তি: ফ্রান্সের ওয়েবসাইটে বাংলাদেশি হ্যাকারদের হামলা গৃহবধূকে তুলে নিয়ে চেয়ারম্যান-মেম্বার মিলে দলবেঁধে ধর্ষণ! অপহরণকারীদের ছেড়ে দিল পুলিশ, ওসিসহ ৮ জনের বিরুদ্ধে পুনঃতদন্তের নির্দেশ বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন প্রেমিকা তাহিরপুরে জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত উখিয়ায় জাতীয় স্যানিটেশন ও হাত ধোয়া দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ২৩, শনাক্ত ১৩০৮ কাফনের কাপড় পরে থানায় আমরণ অনশনে রায়হানের মা

গৃহবধূকে চার টুকরো করে হত্যার ঘটনায় ছেলে আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট : বুধবার, ৭ অক্টোবর, ২০২০
গৃহবধূকে চার টুকরো করে হত্যার ঘটনায় ছেলে আটক

নোয়াখালী: নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় নুর জাহান বেগম (৪২) নামে এক গৃহবধূকে চার টুকরো করে হত্যার ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার ছেলে হুমায়ূন কবিরকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার (৭ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাকে আটক করা হয়।

হুমায়ূন কবির সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের মৃত আব্দুল বারেকের ছেলে।
চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহেদ উদ্দিন বাংলানিউজকে জানান, ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সন্দেহজনক হওয়ায় গৃহবধূ নুর জাহানের ছেলেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার বিকেল ৫টার দিকে পুলিশ সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জাহাজমারা গ্রামের একটি ধানক্ষেত থেকে ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে। নিহত গৃহবধূ নুর জাহান ওই এলাকার মৃত আব্দুল বারেকের স্ত্রী।

তিনি আট ছেলে ও এক মেয়েসহ নয় সন্তানের জননী।
স্থানীয়রা জানান, ওই গৃহবধূকে কেটে চার টুকরো করে হত্যা করা হয়েছে।

তবে শরীরের চার টুকরোর মধ্যে বুক আর পায়ের অংশ এখনো পাওয়া যায়নি।
নিহত গৃহবধূ নুর জাহানের ছেলে হুমায়ন কবির জানান, বুধবার ভোর থেকে তার মা নিখোঁজ ছিলেন। পরে স্থানীয় এক নারী বিকেলের দিকে উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জাহাজমারা গ্রামের একটি ধানক্ষেতের আইলে শামুক খুঁজতে এসে মরদেহের একটি টুকরো দেখতে পান। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার মায়ের মরদেহ শনাক্ত করি।

 

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা