• মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ১২:৪৯ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
নোটিশ :
প্রতিটি জেলায় দক্ষ ও অভিজ্ঞ সংবাদকর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে বেতন-ভাতা আলোচনা সাপেক্ষ।আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন ০১৮৬৫-১১৫৭৮৭ আমাদের ভুবনে আপনাকে স্বাগতম>> তথ্য নির্ভর সংবাদ পেতে সাথে থাকুন ধন্যবাদ।

পর্তুগালে তাসলিম উদ্দিনকে নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশনের সংবর্ধনা

রিপোর্টার
আপডেট : মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭
ফাইল ছবি

পর্তুগালের রাজধানী লিসবন সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে জইন্তা ফেগ্রেসিয়া সান্তা মারিয়া মাইওরের কাউন্সিলর পদে দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি রানা তাসলিম উদ্দিন। ১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত লিসবন সিটি কাউন্সিল নির্বাচনে তাসলিম উদ্দিন জয়লাভ করেন।

তাসলিম উদ্দিন কাউন্সিলর হিসেবে জয়লাভ করায় সংবর্ধনার আয়োজন করেছে বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন ইন পর্তুগাল। ১৯ নভেম্বর সন্ধ্যায় লিসবনের চারতারা হোটেল মুন্ডিয়ালের কনফারেন্স হলে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়। নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন ইন পর্তুগালের সভাপতি হুমায়ুন কবির জাহাঙ্গীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন আল মাসুদ সুমন এবং নাঈম হাসান পাভেল। পর্তুগালে অবস্থানরত সব বাংলাদেশিরা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

শুরুতেই কোরআন তেলাওয়াত করেন মো. আবুল হাসান। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন ইন পর্তুগালের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনজুরুল হোসেন জিন্নাহ। বক্তব্য রাখেন অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসাইন সুমন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ।

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লিসবন সিটি কাউন্সিলের জইন্তা ফেগ্রেসিয়া সান্তা মারিয়া মাইওরের প্রেসিডেন্ট ডক্টর মিগুয়েল কোয়েলো। পর্তুগিজ স্যোসালিস্ট পার্টি পোর্তোর সদস্য ও বাংলাদেশ কমিউনিটি অব পোর্তোর সভাপতি শাহ আলম কাজল উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রেসিডেন্ট ডক্টর মিগুয়েল কোয়েলো বলেন, বাংলাদেশিরা শান্তিপ্রিয় অভিবাসী হিসেবে পর্তুগালে খ্যাতি অর্জন করেছে। নির্বাচনে বেশিরভাগ বাংলাদেশিই আমাদের সহযোগিতা করেছে। তাদের সঙ্গে এমন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পেরে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। আশা করব, বাংলাদেশিরা তাদের এই সুনাম বজায় রাখবেন এবং পর্তুগিজ কমিউনিটির সঙ্গে এ সম্পর্ক আরও জোরালো হবে।

হুমায়ুন কবির জাহাঙ্গীর বলেন, লিসবন সিটি কাউন্সিলের নির্বাচনে পর পর দু’বার বাংলাদেশি ও নোয়াখালীর কৃতি সন্তান রানা তাসলিম উদ্দিনের সাফল্যে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। তিনি আমাদের আগামী প্রজন্মের জন্য পথ তৈরি করে দিয়ে যাচ্ছেন। আগামী দিনে রানা তাসলিম উদ্দিনের দেখানো পথে একদিন হয়ত বাংলাদেশের কেউ পর্তুগালের সিটি মেয়র কিংবা প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হবেন।

 

রানা তাসলিম উদ্দিন বলেন, আমি ১৯৯১ সালে যখন প্রথম পর্তুগালে আসি এখানে মাত্র ১২ জন বাংলাদেশি ছিলেন। সময়ের পালাবদলে সবাই পর্তুগাল ছেড়ে গেছেন, কিন্তু আমি এ দেশেকে ভালোবেসে থেকে গেছি। এদেশের মূলধারার রাজনীতিতে আমিই প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে জড়িত হয়ে বর্তমান সরকারি দল পর্তুগিজ স্যোসালিস্ট থেকে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছি। এত সুন্দর আয়োজনের জন্য বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশনের নেতাদের কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আবুল বাসার, শহীদ উল্যাহ, শাহাদাত হোসেন, ইমরান হোসাইন ভূইয়া, তবারক হোসেন তপু, শাকিল জিয়া, ফুয়াদ হাসান, এমরান হোসেন, রাইসুল ইসলাম রানা প্রমুখ।



ফেসবুকে আমরা