ক্রসফায়ার সন্ত্রাস-মাদক নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না: মেনন | Daily Cox News
  • বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১০:১৬ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

ক্রসফায়ার সন্ত্রাস-মাদক নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না: মেনন

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেট সময় : সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০২০
Screenshot 20200817 235047

ঢাকা: ক্রসফায়ার বা বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সন্ত্রাস বা মাদক নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি সংসদ সদস্য রাশেদ খান মেনন।

ওয়ার্কার্স পার্টির ‘সন্ত্রাসবিরোধী দিবস’ উপলক্ষে সোমবার (১৭ আগস্ট) আয়োজিত এক অনলাইন আলোচনায় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

রাশেদ খান মেনন বলেন, যে নামেই ডাকা হোক না কেন, ক্রসফায়ার বা বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সন্ত্রাস বা মাদক নিয়ন্ত্রণে কোনো ভূমিকা পালন করতে পারেনি। বরং রাষ্ট্রকে বিপদাপন্ন করেছে। অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহার মৃত্যুতে রাষ্ট্রের দু’টি বাহিনীকে প্রায় পরস্পর মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছিল। দুই বাহিনীর প্রধানকে নজিরবিহীন যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করে সবাইকে আশ্বস্ত করতে হয়েছে।

অন্যদিকে, কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভে দেড়শর ওপরে মানুষকে ক্রসফায়ার দেওয়ার পরও গত সপ্তাহেও সেখান থেকে কয়েক লাখ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। এসব কারণেই মানুষের মৌলিক অধিকার হরণকারী এ অমানবিক আচরণকে এখনই বন্ধ করতে হবে।

পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, আটাশ বছর অতিবাহিত হলেও রাশেদ খান মেননকে হত্যা প্রচেষ্টার বিচার না হওয়ায় এ দেশে যে বিচারহীনতার সংস্কৃতি প্রচলিত রয়েছে তারই একটি দৃষ্টান্ত। খালেদা জিয়ার বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ‘অপরাশেন ক্লিনহার্ট’ হত্যাকে আইন করে দায়মুক্তি দিয়েছিলেন, এখন তারই অনুসরণে বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডকে অঘোষিত দায়মুক্তি দেওয়া হচ্ছে।

ফজলে হোসেন বাদশা বিচার বহির্ভূত সব হত্যাকাণ্ডকে বিচারের আওতায় এনে দেশে আইনের শাসনকে দৃশ্যমান করার আহ্বান জানান।

ভার্চ্যুয়াল আলোচনায় আরও বক্তব্য রাখেন পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক ও ড. সুশান্ত দাস। সভাটি পরিচালনা করেন নুর আহম্মদ বকুল।

১৯৯২ সালের ১৭ আগস্ট ওয়ার্কার্স পার্টির অফিসের সামনে রাশেদ খান মেননকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা করে সন্ত্রাসীরা। দেশে-বিদেশে দীর্ঘ চিকিৎসা শেষে তিনি জীবন ফিরে পান। সেই থেকে ওয়ার্কার্স পার্টি দিনটিকে ‘সন্ত্রাসবিরোধী দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ