• শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম
উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় আর্মড পুলিশের এএসআই নিহত আওয়ামীলীগ বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবসময়ই অত্যন্ত শক্তিশালী ও গুরুত্বপূর্ণ দল -কৃষিমন্ত্রী জয়পুরহাটে দুই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ব্যক্তির কারাদণ্ড মৌলভীবাজারে শ্রীমঙ্গলে রেলের জমি উদ্ধারে বাধা, রেলের এক্সাভেটরে দুর্বৃত্তের আগুন শেষ হলো সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন দেশে করোনায় আরও ৫১ জনের মৃত্যু ইভ্যালির সিইও রাসেল গ্রেপ্তার প্রবাস থেকে স্বামী আসার খবরে প্রেমিকের হাত ধরে পালালো এক সন্তানের জননী কোটবাজারে চাকবৈঠার ইব্রাহিম বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ র‍্যাবের হাতে আটক রত্নাপালং ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ইমাম হোসেন

বাংলাদেশে লাখ টন চাল রপ্তানির আগ্রহ মিয়ানমারের

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেট সময় : সোমবার, ১১ জানুয়ারী, ২০২১
বাংলাদেশে লাখ টন চাল রপ্তানির আগ্রহ মিয়ানমারের

বাংলাদেশের সঙ্গে দামদরে মিলে গেলে ১ লাখ টন চাল আমদানিতে রাজি আছে মিয়ানমার। দেশটির প্রভাবশালী ইংরেজি দৈনিক মিয়ানমার টাইমসের দাবি, বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে মিয়ানমার সরকারের আলোচনা চলছে।

ব্যাংকক পোস্টের সহযোগী এই গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে সোমবার বলা হয়েছে, সরকারি পর্যায়ের এই চুক্তিতে দরদাম কী হবে, তা এখনো ঠিক হয়নি।

মিয়ানমারের খাদ্যশস্য সংগঠনের সেক্রেটারি ইউ অং মিন্ট পত্রিকাটিকে বলেছেন, ‘কয়েক দিনের মধ্যে আমরা দাম নিয়ে আলোচনা করবো। দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতায় পৌঁছানো গেলে সমুদ্রপথে এই চাল পাঠানো হবে।’

চাল উৎপাদনে বিশ্বের ৭তম দেশ মিয়ানমার। এবার তারা রপ্তানিতেও এগিয়ে যাওয়ার জন্য বিশেষ মনোযোগী হয়েছে। বর্তমানে মিয়ানমার সরকার ২০ লাখ টন চাল রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করেছে। এতে দেশটির আন্তর্জাতিক চালের বাজারে আরও এক ধাপ এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

তারা স্থল এবং জলপথের মাধ্যমে ৬৫টি দেশে চাল রপ্তানি করে থাকে। তাদের রপ্তানির বড় একটি অংশ যায় চীনে।

মিয়ানমার থেকে সর্বশেষ তিন বছর আগে চাল আমদানি করে বাংলাদেশ।

মিয়ানমারের খাদ্যশস্য অ্যাসোসিয়েশন মনে করছে, যেহেতু সরকার-টু-সরকার আলোচনা হচ্ছে তাই শেষ পর্যন্ত এবার চুক্তি হয়ে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে টেন্ডারের প্রয়োজন হবে না।

মিয়ানমার বলছে, ব্যাটে-বলে মিলে গেলে ফেব্রুয়ারি নাগাদ তারা বাংলাদেশে চাল পাঠাতে চায়।

এই খবর এমন সময় আসল, যখন দেশটির স্থানীয় ব্যবসায়ীরা রাখাইন রাজ্য সরকারের কাছে সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে ব্যবসার অনুমতি চাচ্ছেন। করোনার কারণে প্রায় বছরখানেক ধরে সীমান্ত বন্ধ রয়েছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতেও সেখানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত।

মিয়ানমার এখন চাল পাঠাচ্ছে মালয়েশিয়ায়। দেশটি ১৫ হাজার টন চাল অর্ডার করেছে। ফিলিপাইনও চেষ্টা করছে তাদের থেকে চাল নিতে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর