• শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০০ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম
উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় আর্মড পুলিশের এএসআই নিহত আওয়ামীলীগ বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবসময়ই অত্যন্ত শক্তিশালী ও গুরুত্বপূর্ণ দল -কৃষিমন্ত্রী জয়পুরহাটে দুই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ব্যক্তির কারাদণ্ড মৌলভীবাজারে শ্রীমঙ্গলে রেলের জমি উদ্ধারে বাধা, রেলের এক্সাভেটরে দুর্বৃত্তের আগুন শেষ হলো সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন দেশে করোনায় আরও ৫১ জনের মৃত্যু ইভ্যালির সিইও রাসেল গ্রেপ্তার প্রবাস থেকে স্বামী আসার খবরে প্রেমিকের হাত ধরে পালালো এক সন্তানের জননী কোটবাজারে চাকবৈঠার ইব্রাহিম বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ র‍্যাবের হাতে আটক রত্নাপালং ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ইমাম হোসেন

বাড়ছে কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়ে, যাচ্ছে সাগরের ওপর

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট সময় : বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
'দুই মাসের মধ্যে কক্সবাজার বিমান বন্দরে দিবারাত্রি ফ্লাইট চালু হবে'

ঢাকা: আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করতে বঙ্গোপসাগরের তলদেশে ব্লক তৈরি করে বাড়ানো হচ্ছে কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়ে। শিগগিরই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চীনের ঢাংজিয়াং ইচাং ওয়াটারওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যুরো ও চীনা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন করপোরেশন কাজ শুরু করবে।

সূত্র জানায়, কক্সবাজার বিমানবন্দরের বর্তমান রানওয়ের দৈর্ঘ্য ৯ হাজার ফুট। এতে সম্প্রসারণ করা হচ্ছে আরও ১ হাজার ৭শ’ ফুট।

সম্প্রসারিত হতে যাওয়া রানওয়ের ১ হাজার ৩শ’ ফুটই থাকবে সমুদ্রের ওপর।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সমুদ্রের তলদেশে ব্লক তৈরি করে এর ওপর স্থাপনা নির্মাণ করা হয়।

দেশে এ প্রথম কোনো স্থাপনা নির্মাণ করা হচ্ছে এ প্রক্রিয়ায়। কক্সবাজার বিমানবন্দরের মহেশখালী চ্যানেলের দিকে ল্যান্ড রেক্লেমেশন প্রক্রিয়ায় সম্প্রসারিত হবে এ রানওয়ে।
বেবিচক সূত্র বলছে, কক্সবাজার বিমানবন্দরের রানওয়ে সম্প্রসারণ প্রকল্প যৌথভাবে বাস্তবায়ন করছে চীনের ঢাংজিয়াং ইচাং ওয়াটারওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যুরো ও চীনা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন করপোরশন।

প্রকল্পের আওতায় ১ হাজার ৭শ’ ফুট রানওয়ে সম্প্রসারণ করা হবে। পুরো প্রকল্পের অর্থায়ন করছে বেবিচক। এতে খরচ হবে ১ হাজার ৫৬৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা।

বেবিচক কর্মকর্তারা বলছেন, কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করার প্রক্রিয়া হিসেবে এ সম্প্রসারণ প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। রানওয়ে সম্প্রসারণ হলে এ বিমানবন্দরে বোয়িং-৭৭৭ ও বোয়িং-৭৪৭ মডেলের সুপরিসর উড়োজাহাজ ওঠা-নামা করতে পারবে।

সূত্র জানায়, প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে সম্প্রতি চীনের ঢাংজিয়াং ইচাং ওয়াটারওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যুরো ও চীনা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন করপোরেশনের সঙ্গে চুক্তি করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। বেবিচক সদরদপ্তরে ঢাংজিয়াং ইচাং ওয়াটারওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যুরো ও চীনা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন করপোরেশন জেভির প্রতিনিধি ইয়াং জিজুন এবং বেবিচক চেয়ারম্যান এম মফিদুর রহমান এ চুক্তিতে সই করেন।

গত ৬ জানুয়ারি প্রকল্পটি সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় অনুমোদন দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর