• শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম
উখিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় আর্মড পুলিশের এএসআই নিহত আওয়ামীলীগ বাংলাদেশের রাজনীতিতে সবসময়ই অত্যন্ত শক্তিশালী ও গুরুত্বপূর্ণ দল -কৃষিমন্ত্রী জয়পুরহাটে দুই শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে এক ব্যক্তির কারাদণ্ড মৌলভীবাজারে শ্রীমঙ্গলে রেলের জমি উদ্ধারে বাধা, রেলের এক্সাভেটরে দুর্বৃত্তের আগুন শেষ হলো সংসদের চতুর্দশ অধিবেশন দেশে করোনায় আরও ৫১ জনের মৃত্যু ইভ্যালির সিইও রাসেল গ্রেপ্তার প্রবাস থেকে স্বামী আসার খবরে প্রেমিকের হাত ধরে পালালো এক সন্তানের জননী কোটবাজারে চাকবৈঠার ইব্রাহিম বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ র‍্যাবের হাতে আটক রত্নাপালং ইউপি নির্বাচন : চেয়ারম্যান পদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ইমাম হোসেন

মাদক পাচারকারীরা মুক্তি পাওয়ায় পদক ফিরিয়ে দিলেন নারী পুলিশ কর্মকর্তা

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেট সময় : সোমবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২০
মাদক পাচারকারীরা মুক্তি পাওয়ায় পদক ফিরিয়ে দিলেন নারী পুলিশ কর্মকর্তা

 অসীম সাহসিকতা নিয়ে সাত মাদক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছিলেন ভারতের মনিপুর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) থৌওনাজম বৃন্দা। আর এ সাহসিকতার জন্য ২০১৮ সালে তিনি ‘‌চিফ মিনিস্টার পুলিশ মেডেল’‌ পান। তবে উপযুক্ত প্রমাণ পাওয়া যায়নি মর্মে ওই সাত মাদক পাচারকারীকে বেকসুর খালাস দিয়েছে মনিপুরের ইম্ফলের একটি বিশেষ আদালত। মাদক পাচারকারীদের বেকসুর খালাস দেওয়ার প্রতিবাদে রাজ্য সরকারের দেওয়া ওই মেডেলটি ফিরিয়ে দিয়েছেন থৌওনাজম বৃন্দা, পুরস্কার ফিরিয়ে দেওয়ার বিষয়ে চিঠি লিখেছেন মনিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিংকেও।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের খবরে বলা হয়, উত্তর–পূর্ব ভারতের রাজ্য মনিপুরে দীর্ঘদিন ধরেই মাদক ব্যবসা বেড়েই যাচ্ছিল। এ ব্যবসা রুখতে ‘মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ’ ঘোষণা করে মনিপুর সরকার। আর এ যুদ্ধের নেতৃত্বে ছিলেন থৌওনাজম বৃন্দা। সে সময় তিনি সাত মাদক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেন। গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে এক বিজেপি নেতাও ছিল, যা নিয়ে মনিপুরে হইচই পড়ে যায়।

মনিপুর পুলিশের এ নারী কর্মকর্তার অভিযানে কার্যত থমকে যায় মাদক ব্যবসা। এরপর ২০১৮ সালের ১৩ আগস্ট মনিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিংয়ের হাত থেকে সাহসিকতার জন্য ‘‌চিফ মিনিস্টার পুলিশ মেডেল’ গ্রহণ করেন তিনি। এ ছাড়া তাকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(এএসপি) পদেও পদোন্নতি দেওয়া হয়।

এদিকে, ২০১৮ সালে গ্রেপ্তার হওয়া ওই সাতজনকে সম্প্রতি বেকসুর খালাস করে ইম্ফলের বিশেষ আদালত। আদালত থেকে জানানো হয়, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ নেই এবং পুলিশের তদন্তে আদালত খুশি নয়। আর এ জন্যই তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

ইম্ফলের ওই আদালতের এমন সিদ্ধোন্তের পর এরপরই নিজের পদক ফিরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন থৌওনাজম বৃন্দা। তিনি চিঠি লিখে মনিপুরের মুখ্যমন্ত্রীকেও বিষয়টি জানান।

পরবর্তীতে এক বিবৃতিতে থৌওনাজম বৃন্দা বলেন, ‘‌আমার মনে হয়েছে আমি নিজের দায়িত্ব ঠিকভাবে পালন করতে পারিনি। এই পদক বা সম্মান পাওয়ার যোগ্য আমি নই। তাই আমার এই পদকটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ফিরিয়ে দিলাম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর