• সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৩৪ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম
উখিয়ায় নারী নির্যাতন বিরোধী অরেঞ্জ ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত উখিয়ার ভালুকিয়ায় কবরস্থান দখলের প্রচেষ্টা উখিয়া থানা পুলিশের অভিযানে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ এক মাদককারবারী আটক উখিয়ায় অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি+) প্রকল্পের কাজ উদ্ধোধন আমি ক্ষমাপ্রার্থী : চকরিয়ার পৌর কাউন্সিলর রাশেদার বিবৃতি ঘুমধুম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ দেলোয়ারের বিদায় সোহাগ রানার বরণ অনুষ্ঠান উখিয়ায় র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবা ও স্বর্ণের বারসহ আটক-১ খুনিয়াপালং এর আব্দুল হক ইয়াবাসহ আটক,সহযোগী আব্দুর রহিম পলাতক উখিয়া প্রধান সড়ক চৌরাস্তার মোড়ে জেব্রা ক্রসিং স্থাপনের দাবি খুনিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবদুল হক কোম্পানীর প্রতিবাদ ও ব্যাখ্যা

মিয়ানমারে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করলো সু চির দল

ডেস্ক রিপোর্ট
আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২০
রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে সু চিকে যুক্তরাষ্ট্রের চাপ

পরবর্তী সরকার গঠনের মতো যথেষ্ট সংখ্যক পার্লামেন্টারি আসন নিশ্চিত করে ফেলেছে মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি (এনএলডি)। সর্বশেষ নির্বাচনি ফলাফল অনুযায়ী অং সান সু চি’র নেতৃত্বাধীন দলটি ৩৪৬ আসনে জয় পেয়েছে। তবে ইতোমধ্যেই পুনর্নির্বাচনের দাবি তুলেছে সেনা সমর্থিত বিরোধী দল। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

মিয়ানমারে অর্ধশত বছরের বেশি সময় ধরে সেনাবাহিনী ও সেনা-সমর্থিত সরকারের অবসান ঘটিয়ে ২০১৫ সালের সাধারণ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পায় এনএলডি। যদিও এখনও সে দেশের রাজনীতিতে সেনাবাহিনীর প্রভাব প্রবল। সংবিধান অনুযায়ী, পার্লামেন্টের ২৫ শতাংশ আসন সেনাসদস্যদের জন্য বরাদ্দ। গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়গুলোর দেখভালও সেনাবাহিনী করে। সরকার গঠনের জন্য দেশটির ৪১৬ আসনের পার্লামেন্টের ৩২২ এর বেশি আসনে জয় দরকার পড়ে।

২০১৭ সালের রোহিঙ্গা সংকটের পর এবারের নির্বাচনকে অনেকেই সু চি’র জনপ্রিয়তা যাচাই হিসেবে দেখছিলেন। ওই বছর সেনা নিপীড়নের মুখে লাখ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে গেলে আন্তর্জাতিক সমালোচনার মুখে পড়েন সু চি। তবে সেনাবাহিনীর পক্ষে আন্তর্জাতিক আদালতে দাঁড়ানোর পর নিজ দেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পান তিনি।

এনএলডি’র জয়ের খবর সামনে আসার পর ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি দেশ দলটিকে অভিনন্দন জানিয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছে ভারত ও জাপান।

গত রবিবার মিয়ানমারের পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনি কর্মকর্তারা এখনও গণনা চালিয়ে যাচ্ছেন। ৪১৬ আসনের মধ্যে ৬৪টির ফলাফল এখনও স্পষ্ট নয়।

ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পরপরই জয় দাবি করে এনএলডি। তবে নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ এনে পুনর্নির্বাচনের দাবি তুলেছে বিরোধীরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর