রং নম্বরে পরিচয়, বিয়ের কথা বলে মাইক্রোবাসে গৃহবধূকে রাতভর ধর্ষণ | Daily Cox News
  • শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৩:১৯ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

রং নম্বরে পরিচয়, বিয়ের কথা বলে মাইক্রোবাসে গৃহবধূকে রাতভর ধর্ষণ

বিশেষ প্রতিবেদন
আপডেট সময় : বুধবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২০
বাগেরহাটে এনজিওকর্মীকে দল বেঁধে ধর্ষণ

পঞ্চগড়ে মাইক্রোবাসে রাতভর এক গৃ’হবধূকে (২০) ধ”ণের ঘটনা ঘটেছে। ওই গৃ’হবধূর অ’ভিযোগের প্রেক্ষিতে দুই ধ’র্ষক ও তাদের দুজন সহযোগীকে গ্রে’প্তার করেছে পুলিশ। গ্রে’প্তারকৃতরা হলো ময়দানদিঘী ইউনিয়নের সোনাপাড়া এলাকার জাহিদুল ইসলাম রতন (২৫), একই এলাকার অটোরিকশা চালক আমিরুল ইসলাম (৩০), পঞ্চগড় পৌরসভার নিমনগর এলাকার মাইক্রোবাসচালক শহিদুল ইসলাম (২৭) ও পঞ্চগড় সদর উপজে’লার ধাক্কামা’রা ইউনিয়নের শি’কারপুর এলাকার নুর আলম (২৪)। এদের মধ্যে জাহিদুল ইসলাম রতন ও মাইক্রোবাসচালক শহিদুল ইসলামকে ধ’র্ষক হিসেবে এবং আমিরুল ইসলাম ও নুর আলমকে ধ”ণে সহযোগী হিসেবে অ’ভিযুক্ত করা হয়েছে। গ্রে’প্তার চার আ’সামিকে বুধবার দুপুরে আ’দালতের মাধ্যমে জে’লহাজতে প্রেরণ করা হয়।

মা’মলার অ’ভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পঞ্চগড়ের বোদা উপজে’লার ময়দানদিঘী ইউনিয়নের ওই গৃ’হবধূর সাথে সম্প্রতি রং নম্বরে ময়দানদিঘী ইউনিয়নের সোনাপাড়া এলাকার যুবক জাহিদুল ইসলাম রতনের পরিচয় হয়। রতন মাঝে মধ্যে ওই গৃ’হবধূকে কল করে খোঁজখবর নিত। গত ২৬ অক্টোবর দুপুরে ওই গৃ’হবধূ তার স্বামীর সাথে ঝ’গড়া করেন। বিকেলে রতন ওই গৃ’হবধূর মোবাইলে কল করে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। গৃ’হবধূও প্রলোভনে পড়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে গিয়ে ময়দানদিঘী বিআরটিসি কাউন্টারে যায়। সেখানে রতন ওই গৃ’হবধূকে বিয়ের জন্য কাজি অফিসে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে আমিরুলের অটোরিকশায় করে বোদা বাজার হয়ে পঞ্চগড় রেলস্টেশনে নিয়ে যায়। সেখানে খাওয়া-দাওয়ার পর গভীর রাতে শহিদুলের মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে মালাদাম এলাকার এক বন্ধুর বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে সুবিধে করতে না পেরে আবার ওই গৃ’হবধূকে নিয়ে পঞ্চগড় মৈত্রি ফিলিং স্টেশনে সামনে গাড়ি থামায়। এ সময় ওই গৃ’হবধূ তাদের উদ্দেশ্য বুঝতে পেরে চি’ৎকার করলে তারা তাকে মা’রধর করে এবং গ’লা চে’পে ধরে। একপর্যায়ে রতন ওই গৃ’হবধূকে ধ”ণ করে। পরে চালক শহিদুলও তাকে ধ”ণ করে। তারা দুজনের ভোর পর্যন্ত পালাক্রমে ধ”ণ করে ওই গৃ’হবধূকে।

এ সময় অটোরিকশাচালক আমিরুল ও নুর আলম বাইরে পাহারা দেয়। ভোরে ওই গৃ’হবধূকে মোটরসাইকেলযোগে নিয়ে বোদা বাসস্ট্যান্ডে নামিয়ে দিয়ে চলে যায় রতন। খবর পেয়ে ওই গৃ’হবধূর স্বামী তাকে সেখান থেকে বাড়ি নিয়ে যায়। বাড়ি ফিরে মঙ্গলবার রাতে ওই গৃ’হবধূ তার স্বামীকে নিয়ে বোদা থানায় গিয়ে দুই ধ’র্ষকসহ চারজনকে আ’সামি করে নারী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আইনে একটি মা’মলা করেন। মা’মলার পর রাতেই রতনকে গ্রে’প্তার করে বোদা থানা পুলিশ। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী অপর তিন আ’সামিকেও গ্রে’প্তার করা হয়। তাদের ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটিও জ’ব্দ করা হয়।

বোদা থানারও পরিদর্শক (ত’দন্ত) আবু সায়েম মিয়া জানান, ওই গৃ’হবধূ বা’দী হয়ে ওই চারজনের বি’রুদ্ধে নারী ও শি’শু নি’র্যাতন দ’মন আইনের সংশোধন ২০২০ অধ্যাদেশে অ’পহরণ ও ধণের মা’মলা করেছেন। আ’সামিদের আ’দালতের মাধ্যমে জে’লহাজতে পাঠানো হয়েছে। ধ”ণের শি’কার ওই গৃ’হবধূর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।
সূত্রঃ কালের কণ্ঠ


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ