৪৯ হাজার ইয়াবা রেখে আসামি ছেড়ে দিয়ে কারাগারে ওসি | Daily Cox News
  • মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

৪৯ হাজার ইয়াবা রেখে আসামি ছেড়ে দিয়ে কারাগারে ওসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
৪৯ হাজার ইয়াবা রেখে আসামি ছেড়ে দিয়ে কারাগারে ওসি

৪৯ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সাবেক ওসি কামরুল ইসলাম এখন কারাগারে। গত ২২ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জু’ডিশিয়াল ম্যা’জিস্ট্রেট আ’দালতে আত্মসমর্পণ করে জা’মিন আবেদন করেন কামরুল ইসলাম। পরে আ’দালত জা’মিন নামঞ্জুর করে তাকে কা’রাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বি’ষয়টি নিশ্চিত করে জে’লা আ’দালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, গত ২২ অক্টোবর সিনিয়র জু’ডিশিয়াল ম্যা’জিস্ট্রেট কাওসার আলমের আ’দালত জা’মিন নামঞ্জুর করে আ’দালতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন। ৪৯ হাজার পিস ইয়াবা উ’দ্ধারের ঘটনায় দা’য়ের করা মা’মলায় সদর থানার সাবেক ওসি কামরুল ইসলাম বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জে’লা কা’রাগারে আছেন।

নারায়ণগঞ্জ জে’লা কা’রাগারের তত্ত্বাবধায়ক (সুপার) মো. মাহবুবুল আলম বলেন, ইয়াবা মা’মলায় কামরুল ইসলাম কা’রাগারেই আছেন।

উল্লেখ্য, ওসি কামরুল ইসলাম প্রে’সিডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম) প্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা। ২০১৮ সালের ৭ মার্চ নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আলম সরোয়ার্দী রুবেলকে বন্দর থানার রূপালী আবাসিক এলাকার বাসা থেকে ৪৯ হাজার ইয়াবা ও ৫ লাখ টাকাসহ গ্রে’প্তার করে জে’লা গো’য়েন্দা পুলিশের এসআই মাসুদ রানা।

পরদিন বন্দর থানায় চারজনকে আ’সামি করে মা’দকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মা’মলা করা হয়। এই মা’মলায় পুলিশ কনস্টেবল আসাদুজ্জামানসহ কয়েকজনকে আ’টক করা হয়।

পরে সরোয়ার্দী ও আসাদুজ্জামানের স্বী’কারোক্তিমূলক জ’বানব’ন্দিতে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলামের নাম উঠে আসে।

জ’বানব’ন্দিতে এএসআই রুবেল ও কনস্টেবল আসাদুজ্জামান বলেন, ওসি কামরুল ইসলামের নির্দেশেই টাকা ও ইয়াবা রেখে আ’সামিদের ছেড়ে দিয়েছেন তারা। মা’মলাটি অ’পরাধ ত’দন্ত বিভাগে (সিআইডি) ত’দন্তাধীন রয়েছে।

গত বছরের ৪ মার্চ উচ্চ আ’দালতের নির্দেশে সদর থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয় ওসি কামরুল ইসলামকে। এর এক মাসের মাথায় ২ এপ্রিল আবারও একই পদে বহাল করা হয় তাকে। এরপর তিন মাস ওসির দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

পরে তাকে বদলি করে জে’লা গো’য়েন্দা শাখায় (ডি’বি) আনা হয়। তবে বর্তমানে তিনি নারায়ণঞ্জ জে’লা পুলিশে নেই বলে জানান জে’লা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-১) ইকবাল হোসেন।

তিনি বলেন, ‘তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যত্র পোস্টিং পেয়েছিলেন। বর্তমানে কোথায় আছেন জানি না। তবে তিনি নারায়ণগঞ্জ জে’লা পুলিশে নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেইসবুক পেইজ