রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০৩:১১ পূর্বাহ্ন

সাড়ে তিন মাস পর হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পিয়াজ আমদানি শুরু

বিশেষ প্রতিনিধি
আপডেট শনিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২১
মিয়ানমার থেকে এলো আরও ২৪ টন পিয়াজ

টানা সাড়ে তিন মাস বন্ধ থাকার পর আবারো ভারত থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পিয়াজের আমদানি শুরু হয়েছে। স্থলবন্দর এলাকায় আসতে শুরু করেছে পাইকার-পত্র, অন্যদিকে পিয়াজ আমদানি শুরু হওয়ায় স্থানীয় খুচরা বাজারে কমতে শুরু করেছে দাম।
গত ২৮ ডিসেম্বর ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় পিয়াজ রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবার পর শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় ভারত থেকে পিয়াজ বোঝাই ট্রাক স্থলবন্দরে প্রবেশ করে। এর মধ্য দিয়ে সাড়ে তিন মাস পর দুই দেশের মাঝে পিয়াজের বাণিজ্য শুরু হয়।

ইতোমধ্যেই প্রায় ৫ হাজার টনের মতো পিয়াজের আইপি খোলা হয়েছে।
হিলি স্থলবন্দরের পিয়াজ আমদানিকারকরা জানান, আজকে দেশে ভারতীয় পিয়াজের প্রথম চালান এসেছে। দীর্ঘদিন ধরে ভারত, বাংলাদেশে পিয়াজ রপ্তানি বন্ধ রেখেছিল। তারা পিয়াজের উপর থেকে গত ২৮ ডিসেম্বর রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে।

আশা করা হচ্ছে দুই-একদিনের মধ্যে বাজারে ভারতীয় পিয়াজের সরবরাহ বেড়ে গেলে দাম ২২-২৫ টাকায় নেমে আসবে।
এদিকে হিলি স্থলবন্দরের আড়তদাররা জানান, ভারত থেকে পিয়াজ আসছে এমন খবরে দেশি পিয়াজ প্রকারভেদে ৩০-৩২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দুইদিন আগেও যেখানে ৩৬-৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছিল।
হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, উৎপাদন সংকট ও দাম বৃদ্ধির অযুহাতে চলতি বছর ১৪ সেপ্টেম্বর পিয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার।

অবশেষে গত ডিসেম্বর মাসের ২৮ তারিখ সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় ভারত সরকার। নিষেধাজ্ঞা তুলে নেবার পর হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা পিয়াজ আমদানির জন্য এলসি করেছে সেই পিয়াজগুলো শনিবার বিকেল থেকে বন্দরে প্রবেশ করতে শুরু করেছে। আশা করছি দুই একদিনের মধ্যে দেশের বাজারে পিয়াজের দাম আরও কমবে।


এ জাতীয় সংবাদ