মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন

মহামারিতে বিমান বাংলাদেশের লোকসান শত কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২১
৬ জানুয়ারি থেকে সৌদিতে ফের বিমানের ফ্লাইট চালু

করোনায় দেশের এয়ারলাইন্স ব্যবসায় ধস নেমেছে। এরইমধ্যে শত কোটি টাকার বেশি লোকসান গুনেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। আর অর্থবছরের ব্যবধানে এবার বেসরকারি এয়ারলাইন্সগুলোর রাজস্ব কমেছে অন্তত ৫০ শতাংশ। ক্ষতির পরিমাণ আরো বড় হচ্ছে করোনার নতুন ধরন দেখা দেয়ার পর। এ পরিস্থিতিতে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালনার ওপরই নির্ভর করতে হচ্ছে প্রায় সব বিমান সংস্থাকে।

করোনাভাইরাসের ধাক্কায় জেরবার এভিয়েশন খাত। এই আর্থিক ক্ষতি পোষাতে বিপাকে পড়েছে, দেশের একটি সরকারি এবং তিনটি বেসরকারি সংস্থা।

২০১৯ সালে বিমানের আর্থিক ক্ষতি ছিল ৮০ কোটি টাকা। যা চলতি বছরের জুলাই থেকে নভেম্বর পর্যন্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে, ১৭৪ কোটি টাকায়। এতে স্থগিত রয়েছে, জাপান, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, চীন শ্রীলঙ্কা ও মালদ্বীপে ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা। সংস্থাটির এমডি ও সিইও জানান, নভেম্বরে অপারেশন লস কমিয়ে ফেলা হয়েছে। যদিও, সরকারের কাছে থেকে প্রণোদনা পেয়েছে, বিমান।

বেসরকারি এয়ারলাইন্স, ইউএস বাংলার দাবি, এই অর্থবছরে রাজস্ব আয় ৫০ শতাংশ কম গেছে। আর নভোএয়ার কর্তৃপক্ষের দাবি, অভ্যন্তরীন রুটে তলানিতে গিয়ে ঠেকেছিল, আয়। তবে, কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে, নভেম্বর-ডিসেম্বরে। এখন আবার করোনার নতুন ধরন নিয়ে উদ্বেগ বাড়ায়, শঙ্কায় আছে এয়ারলাইন্সগুলো।

গত মার্চে বন্ধের পর আর ফ্লাইটই চালু করতে পারেনি আরেক বেসরকারি এয়ারলাইন্স রিজেন্ট এয়ারওয়েজ।


এ জাতীয় সংবাদ