বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১, ০৪:৪৬ অপরাহ্ন

হোটেল কক্ষ ভাড়া নিয়ে জুয়া খেলছিল রাজশাহীর ৯ পুলিশ সদস্য!

নিজস্ব প্রতিবেদক
আপডেট রবিবার, ১০ জানুয়ারী, ২০২১
হোটেল কক্ষ ভাড়া নিয়ে জুয়া খেলছিল রাজশাহীর ৯ পুলিশ সদস্য!

আবাসিক হোটেলের কক্ষ ভাড়া নিয়ে গভীর রাতে মদ্যপ অবস্থায় জুয়া খেলছিলো রাজশাহীর ৯ পুলিশ সদস্য। অপরাধ বিশ্লেষক বলছেন, অপরাধে জড়িত পুলিশ সদস্যরা অবৈধ পথে উপার্জিত টাকা খরচ করতেই এমন অপকর্মে জড়িয়ে পড়ছে। তাই পুলিশ বাহিনীতে সংস্কার প্রয়োজন।

রাজশাহী কলেজের মুসলিম ছাত্রাবাসের সামনের এ হোটেলটির নাম রয়েল প্যালেস। হোটেলটিতে গিয়ে এর মালিক বা ম্যানেজারকে পাওয়া যায়নি। তবে কর্মচারীরা জানান, প্রায়ই পুলিশের ওই ৯ সদস্য হোটেলটিতে এসে সারারাত অবস্থান করতেন।

হোটেল রয়েল প্যালেসের কর্মচারী শাহাবুল আলম বলেন, দুইটা রুম বুক ছিল এন্ট্রি করাও আছে। তারা বলছে, আমরা খাওয়া-দাওয়া করে একটু রেস্ট নিব। আমি বলেছি স্যার এন্ট্রি ছাড়া তো আমরা এত লোক উঠাই না। তারা বলছে সমস্যা নেই আমরা পুলিশ।

এ ঘটনায় আটক নয়জনকেই সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এরা হলেন এএসআই আবদুল বারেক, এএসআই মিজানুর, নায়েক আফজাল সরকার, কনস্টেবল ফরহাদ হোসেন, আব্দুস সালাম, সাহেদ আলী, রফিকুল ইসলাম, বিপুল ও আব্দুল করিম।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি ও মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস মুঠোফোনে বলেন, খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে দেখি তারা খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন করেছিল তা শেষ করে তাস খেলছে। সেখান থেকে তাদেরকে ধরে নিয়ে আসা হয়েছে। তারা সবাই পুলিশ সদস্য।

অপরাধ বিশ্লেষক বলছেন, সরকার অনেক সুযোগ সুবিধা দিলেও পুলিশ সদস্যরা অপরাধ ও দুর্নীতি থেকে সরে আসছেন না। অবৈধপথে আয় করা টাকা খরচ করতেই তারা মদ ও জুয়ায় আসক্ত হচ্ছেন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, ১৮৬১ সালের পুলিশ আইন দিয়ে এখনও বাংলাদেশ পুলিশ চলছে। এক্ষেত্রে পুলিশে আধুনিকরন এবং যারা ভালো পুলিশ অফিসার তাদের অ্যাওয়ার্ড দেয়া ও যারা দুর্নীতিগ্রস্থ তাদের কঠিন শাস্তি দিয়ে জনগনের সামনে এ তথ্যগুলো উপস্থাপন করা দরকার। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে পুলিশ বাহিনীতে সংস্কার করা প্রয়োজন।


এ জাতীয় সংবাদ