• শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

নারীর শরীর ঘষলেই ফুলের সুরভি!

রিপোর্টার নাম :
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১
Screenshot 2021 12 21 19 09 42 23

প্রাচীন পারস্যে সুগন্ধির ব্যবহার ছিল আভিজাত্য ও মর্যাদার প্রতীক। প্রাচীন গ্রিসে সুগন্ধির ব্যবহার শুরু করেন বিশ্বজয়ী বীর আলেকজান্ডার। শুধু অভিজাত পরিবারের সদস্যরাই নন, ধীরে ধীরে সুগন্ধি ব্যবহার হয় সব মহলেই। তবে সুগন্ধি ব্যবহার করে নয়, বরং নিজ শরীর থেকেই ফুলের সুঘ্রাণ বের হয় এমন একজন নারীর সন্ধান পাওয়া গেছে।

 

ভিয়েতনামী সেই নারীর নাম ড্যাং থি তুওই। একদিন কাজ থেকে ফিরে গোসল করেন। এরপর হাত-পা পরিষ্কারের জন্য যত ঘষতে থাকেন ততই তীব্র এক সুঘ্রাণ পেতে থাকেন। কিছুক্ষণ পর তিনি বুঝতে পারেন আশপাশ থেকে নয় বরং তার শরীর থেকেই বের হচ্ছে গন্ধটি।

 

দিনের বেলায় তিনি হাত ঘষলেই এই সুগন্ধ পাওয়া যায়। রাতের বেলায় তার কয়েক মিটার দূরে বসে থাকলে এই গন্ধ এমনিতেই পাবেন যে কেউ।

 

ডাং থি তুওই দাবি করেছেন যে তার শরীরের কিছু অংশ অন্যদের তুলনায় বেশি সুগন্ধযুক্ত এবং দিনের তুলনায় রাতে গন্ধ বেশি। তবে তার মাসিক চক্রের সময়, এই ঘ্রাণের তীব্রতা প্রায় ১০ শতাংশে কমে যায়। তবে এটি সবচেয়ে তীব্র হয় যখন আকাশে পূর্ণিমা থাকে। চন্দ্র ক্যালেন্ডারের প্রথম দিনেও তীব্র সুঘ্রাণ বের হয় ডাং থি তুওইর শরীর থেকে।

 

অনেকেই আসেন ডাং থি তুওইর সঙ্গে দেখা করতে। সুঘ্রাণের পরোখ করেন কৌতূহল মেটাতে। কিয়েন গিয়াং প্রদেশের আরেক নারী ডাং দাবি করেন, ডাং থি তুওইয়ের মতোই, তার শরীর ঘষলে তীব্র ও মনোরম সুগন্ধ বের হয়।

 

তিনি দীর্ঘদিন ধরে তার বিশেষ বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে জানেন, কারণ তিনি যতবার তার ত্বকে তার হাত ঘষেন, তিনি একটি তীব্র সুগন্ধ অনুভব করেন। তবে তিনি এটি সম্পর্কে কাউকে বলেননি।

 

একটি ইউটিউব চ্যানেলে ডাং থি তুওইর ভিডিও দেখার পর নিজের ব্যাপারে অন্যদের জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ডাং থি তুওইয়ের ভিডিওটি ১.৭ মিলিয়নের বেশি ভিউ পেয়েছে।

সূত্র: অডিটি সেন্ট্রাল


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর