• রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২০ পূর্বাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

যে কারণে পরীমনিকে হাতকড়া পরানো হয়নি

রিপোর্টার নাম :
আপডেট সময় : শুক্রবার, ৬ আগস্ট, ২০২১
Screenshot 2021 08 06 15 36 31 01

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নায়িকা পরীমনিকে মাদক মামলায় ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এ ছাড়া পরীমনির সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপুরও চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) রাজধানীর সিএমএম আদালতের বিচারক হাকিম মামুনুর রশীদ শুনানি শেষে তাদের এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এদিকে পরীমনিকে আদালতে উঠানোর সময় কঠোর নিরাপত্তা থাকলেও পরীর হাতে কোনো হাতকড়া পরানো ছিল না। এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমকর্মীরা প্রশ্ন রাখলে একজন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা বলেন, ‘নিরাপত্তার স্বার্থে সাধারণত আসামিকে হাতকড়া পরানো হয়। যেহেতু আসামি নারী এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরা মনে করেছেন তাকে হাতকড়া পরানোর প্রয়োজন নেই। তাই তাকে হাতকড়া পড়ানো হয়নি।’

এদিকে ফৌজদারি কার্যবিধি অনুযায়ী, ১৮৯৮ এর ধারা ৪৬ (১) বলা হয়েছে, পুলিশ যাকে গ্রেপ্তার করবেন তাকে স্পর্শ করবেন অথবা তাকে আবদ্ধ করবেন গ্রেপ্তারের উদ্দেশ্যে। ৪৬(২) এ বলা হয়েছে, যদি গ্রেপ্তার ব্যক্তি বলপ্রয়োগ করেন বা পালানোর চেষ্টা করেন তাহলে পুলিশ প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

পুলিশ প্রবিধানের ৩৩০ ধারায় হাতকড়ার বিষয়টি নিয়ে লেখা রয়েছে, ‘বিচারাধীন বন্দীকে তাহাদের পলায়ন বন্ধ করিবার জন্য যাহা প্রয়োজন তাহার চাইতে বেশি কড়াকড়ি করা উচিত নহে। হাতকড়া বা দড়ির ব্যবহার প্রায় ক্ষেত্রেই অপ্রয়োজনীয় এবং অমর্যাদাকর। বয়স বা দুর্বলতার কারণে যাহাদের নিরাপত্তা রক্ষা করা সহজ ও নিরাপদ তাহাদের ক্ষেত্রেও কড়াকড়ি করা উচিত হইবে না।’

উল্লেখ্য, আদালতে এবং কাঠগড়ায় থাকার পুরো সময়জুড়েই পরীমনি নিশ্চুপ ছিলেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বনানী থানায় দায়ের করা মাদক মামলার জামিন শুনানিতে পরীমনির আইনজীবী নীলঞ্জনা রিফাত সুরভি বলেন, ‘পরীমনি স্বনামধন্য চিত্রনায়িকা। তাকে হয়রানি করার জন্য এ মামলা দেওয়া হয়েছে। তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার। তার বাসায় কোনো মদ পাওয়া যায়নি।’

তিনি আরও বলেন,  ‘তার (পরীমনির) বাসা থেকে যে সাড়ে ১৮ লিটার মদ উদ্ধার দেখানো হয়েছে, তা তার বাসায় ছিল না। তার বাসায় কয়েকটি খালি মদের বোতল ছিল। সেগুলো ডেকোরেশন পিস হিসেবে রাখা ছিল। এগুলো জব্দ তালিকায় দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া, তার কাছে কোনো আইস এবং এলএসডি ছিল না। আমরা তার জামিন চাই।’

এদিন সন্ধ্যার দিকে শামসুন্নাহার স্মৃতি ওরফে পরীমনি ও আশরাফুল ইসলাম ওরফে দীপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮- এর ৩৬ (১) এর সারণি ২৪(খ)/৩৬ (১) এর সারণি ১০ (ক)/৪২(১)/৪১ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

এর আগে বুধবার (৪ আগস্ট) বিকেলে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ ওয়াইন, ভয়ংকর মাদক আইস, এলএসডি ও মাদক সেবনের সরঞ্জামাদি উদ্ধার করে র‌্যাব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর