• বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:৫২ অপরাহ্ন
  • বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी

পরীর ঘটনায় ফাঁসছেন অনেক ভিআইপি!

রিপোর্টার নাম :
আপডেট সময় : রবিবার, ৮ আগস্ট, ২০২১
Screenshot 2021 08 08 17 45 12 20

অনলাইন ডেস্ক: সিআইডির জিজ্ঞাসাবাদে থাকা কথিত প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজ, চিত্রনায়িকা পরীমণি, মডেল ফারিয়া মাহাবুব পিয়াসা ও মরিয়ম আক্তার মৌয়ের ব্ল্যাকমেইল কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত বিভিন্ন পেশার অনেকের নামই পেয়েছে সংস্থাটি। সেগুলো যাচাই-বাছাই করে সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন সিআইডি অতিরিক্ত ডিআইজি শেখ ওমর ফারুক। আজ রবিবার (৮ আগস্ট) মালিবাগে সিআইডি সদর দফতরে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, নানা পেশার লোকজনের জড়িত থাকার বিষয়ে আমরা তথ্য পাচ্ছি। সব ধরনের লোকজনের নামই আমরা পেয়েছি। আমরা অনেক নাম পাচ্ছি, তদন্তের স্বার্থে এগুলো এখনো বলা সম্ভব না। তবে আমরা ভেরিফাই করবো তদন্তের মাধ্যমে। জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন মনে হলে আবারও তাদের রিমান্ড আবেদন করা হবে বলেও জানান তিনি।

সিআইডির তদন্তে আস্থা রাখার আহ্বান জানিয়ে এই কর্মকর্তা আবারও বলেন, অপরাধের সাথে জড়িত যে লেভেলের হোক না কেন আইনের আওতায় আনা হবে।

ডিবি কর্মকর্তা সাকলায়েনের সঙ্গে পরীমণির সম্পর্ক কী, এ বিষয়ে সিআইডির জিজ্ঞাসাবাদে পরীমণি কোনও তথ্য দিয়েছেন কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে ওমর ফারুক বলেন, আমাদের কাছে যেসব মামলা এসেছে বেশিরভাগই মাদকদ্রব্য সংক্রান্ত মামলা। মাদকদ্রব্য সম্পর্কিত বিষয়গুলো আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করছি। তদন্তের বিষয়গুলো ঠিক করেই আমরা অগ্রসর হচ্ছি। যদি অন্য কোনও বিষয় থাকে আমরা পরে তদন্তের মাধ্যমে এগুলো নিয়ে আসবো।

জিজ্ঞাসাবাদে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে উল্লেখ করে ওমর ফারুক বলেন, এসব তথ্য তদন্ত করে সুনির্দিষ্ট বিষয়গুলো পাওয়া গেলেই পরবর্তী সময়ে জানানো সম্ভব হবে। আমরা বলতে চাই কোনও ইনোসেন্ট লোক যেন ভিকটিম না হয় সে ব্যাপারে আমরা কাজ করছি। ব্যাংকের অনেক লোক জড়িত আছে, এমন খবর প্রকাশিত হয়েছে তবে আসলেই তারা এ ধরনের ঘটনায় সম্পৃক্ত কিনা এ বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখছি।

অনেক তথ্য পাওয়া যাচ্ছে, আবার অসংগতিও পাওয়া যাচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কী ধরনের অসংগতি পাচ্ছি এ বিষয়টি এখনই তদন্তের স্বার্থে বলা সম্ভব নয়।

নিশ্চিত হয়েই জড়িত ব্যক্তিদের নাম প্রকাশ করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, সিআইডির উদ্ধৃতি দিয়ে যেসব ব্যক্তির নাম প্রকাশিত হয়েছে, সেসব নাম সিআইডি থেকে দেওয়া হয়নি। এ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট কারও নাম আমরা এখনও প্রকাশ করিনি। আমাদের কাছে অনেক তথ্য আছে, অনেক নাম আছে। যাচাই-বাছাই করার পরেই আমরা বলতে পারবো।

তিনি বলেন, ব্ল্যাকমেইলের শিকার যারা হয়েছেন- তাদেরও নাম আমরা পেয়েছি তবে তাদের সাথে এখনো আমরা কথা বলতে পারিনি। তাদের সাথে আমরা কথা বলবো। তাদের বক্তব্য আমরা নেবো। বক্তব্য যাচাই-বাছাই করবো। যাচাই-বাছাই করেই পরবর্তীতে বলতে পারবো- আরও কারা এসব ঘটনার সাথে জড়িত।

এছাড়া গতকাল রিমান্ডে থাকা ব্যক্তিদের বাসায় তল্লাশি চালিয়ে ল্যাপটপ এবং ইলেকট্রনিক ডিভাইস উদ্ধার করা হয়েছে। সেগুলো ফরেনসিক ডিপার্টমেন্টে দেয়া হয়েছে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর